Home / সর্বশেষ / শ্বাশুড়ির দায়ের কুপে পুত্রবধূ আহত

শ্বাশুড়ির দায়ের কুপে পুত্রবধূ আহত

ahoto putrobodhuটাঙ্গাইলের সখীপুরে শ্বাশুড়ির দায়ের কুপে পুত্রবধূ রুবিয়া বেগম (৩৫)গুরুতর আহত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার বেড়বাড়ী খন্দকারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত পুত্রবধূকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে রুবিয়া আক্তার ও তাঁর ভাই উপজেলার কাঙালিছেও গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু’র সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রুবিয়া আক্তারের স্বামী নূরুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে থাকেন। বাবা-মার কাছে টাকা পাঠালেও তারা নূরুল ইসলামের স্ত্রী সন্তানের ভরণপোষনের জন্য টাকা না দেওয়ায় চার সন্তান নিয়ে রুবিয়া অতি কষ্টে দিন যাপন করেন।জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে নূরুল ইসলামের ছোটছেলে রিফাত (৫) মায়ের কাছে মজা খাওয়ার জন্য বায়না ধরলে রুবিয়া তাঁর শ্বশুর খোরশেদ আলমের কাছে টাকা চাইতে গেলে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শ্বশুর খোরশেদ আলম, শ্বাশুড়ি রাবিয়া বেগম, ভাসুর ওমর আলী, দুই জা জাহানারা ও রুমেছা মিলে রুবিয়াকে বেধড়ক মারপিট করে। এসময় শ্বাশুড়ির দায়ের কুপে রুবিয়ার কপালে জখম হয় । এতে সে সজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে প্রতিবেশীর মুমূর্ষু অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে সখীপুর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তাঁর কপালে দু’টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। এর আগেও বিভিন্ন সময় তাকে নির্যাতন করা হতো বলেও তারা অভিযোগ করেন।রুবিয়া আক্তার বলেন, ‘আমারস্বামী আমারে কোন ট্যাহা পয়সা দেয়না। চার ছেলেমেয়েনিয়া আমি খাইয়া না খাইয়া থাকি। আমার শ্বশুরের কাছেট্যাহা চাইলে সবাই মিলে আমাকে মারধর করে’।পুত্রবধূকে মারধরের বিষয়ে শ্বশুর খোরশেদ আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করেওবক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নাজমুল হোসাইন বলেন, রুবিয়ার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। কপালে কয়েকটি সেলাই দেওয়া হয়েছে। তবে তিনি এখন আশংঙ্কামুক্ত।

সংগৃহিত

About Ontohin

Check Also

mritto

বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে নৈশ প্রহরীর মৃত্যু

টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে সখীপুর সভার নৈশ প্রহরী শফিকুল ইসলামের (২৭) মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার …