Home / মনের জানালা / ফেরত আসা চিঠি

ফেরত আসা চিঠি

chithiএক পা দু পা করে জীবনের
অনেকগুলা সময়
পাড়ি দিয়ে এসেছি আর এই একটু একটু
করে আসা জীবনের অতীত
দিনগুলিতে তুইও অতীত হয়ে আছিস।
চলার পথে অনেক খুঁজেছি তোকে।
কিন্তু
যে আড়ালে লুকিয়ে থাকে তাকে খুঁজে পাবে কে বল?
মনে আছে স্কুল এর প্রথম দিনে তোর
সাথেই কথা বলেছিলাম।তুই শেষ
ব্রেঞ্চের একটা কোণে বসে ছিলি।
আর সেই থেকেই তোর সাথে আমার
বন্ধুত্ব।যেদিন তুই
পড়া পারতিনা সেদিন
আমি পড়া পারলেও স্যার
কে বলতাম পড়া শিখিনি,
পাচে তোকে স্যার মারবেন, আর
আমি মার না খেয়ে বেঁছে যাব।এত
স্বার্থপর ছিলাম না রে।যেইদিন
আমি মায়ের বকা শুনে ভাত
না খেয়ে ঘুমিয়ে যেতাম সেদিন
তুই নিজেই আমায় ঘুম
থেকে উঠিয়ে খাওয়াতি।আমার
জীবনের প্রত্যেকটা উঁচু নিচু
পথে আমি তোকে পেয়েছি।কিন্তু
আজ কেন তুই আমার অতীত
হয়ে আড়ালে লুখিয়ে আছিস।আজ
কেন তোকে খুঁজার হাজার
চেষ্টা করেও আমি ব্যার্থ।
মাঝে মাঝে তোর উপর রাগ হয়।কেন
জানিস?কারন আগে যখন তুই আমায়
খুঁজে পেতিনা তখন
আমি নিজে থেকে তোর
কাছে ধরা দিতাম,তবে আজ কেন
তোকে আমার এত খুঁজতে হবে?খুব
ইচ্ছে হয় তোকে খুঁজতে তর
দেশে চলে যাই।আবার
নিজেকে সামলাই।কেন না,
আমি যদি তোকে খুঁজতে যেয়ে হারিয়ে যাই
তাহলে এই অতীতটুকু যে চির দিনের
জন্য অতীত হয়ে রবে, এই
ভাবনাগুলো আমায় যেতে দেয়না।
তাই বলে তুই আসতে পারিস না?
জানিস তুই তোর
বলা একটা প্রতিজ্ঞা রাখলি না,আমার
সাথে শুধু মিথ্যেই
বলেছিলি যে “তোর মত পাগল
বন্ধুটিকে রেখে যাবনা”।ঠিক
হয়নি রে এমন্টা,সত্যি ঠিক হয়নি।
আমি জানি তুই আসবি না,এটাই
সত্যি কারন তোদের দেশ
থেকে ফিরে আসা যায় না,তাই
আমি পরের জনমে তোর বন্ধু হব
বলে অপেক্ষায় থাকলাম।
তোর পাগল বন্ধু
(কালো ডায়রীর সাদা পাতা)

লিখা– অসমাপ্ত উপসংহার।

About uddin rokon

Check Also

ভাত, কাপড়, ভালবাসা

( ভুমিকায় বলে নেই, গল্পের বক্তা চরিত্রটির মত আমিও নারীবাদি নই।আমি মানি নিয়তি নারী পুরুষ …