Home / মনের জানালা / একজন বাবা ও স্নেহা

একজন বাবা ও স্নেহা

baba o meyeআজ আমার ছোট্ট বুড়িটার জন্মদিন , স্নেহা । ঠিক এই দিন এ সে এসেছিল , সেদিন অনেক বৃষ্টি হচ্ছিলো । আজও হবে , আমি জানি হবে । ছাদ এর এই দিকটায় স্নেহা কে নিয়ে আকাশ দেখতাম । ওর বয়স তখন মাত্র তিন । মেঘদের দিকে এক মনে তাকিয়ে থাকতো এবং বাবার সাথে কত কথা বলত । ভাঙ্গা ভাঙ্গা শব্দে ওর সুন্দর কথাগুলো শুনার জন্য অফিস এ থাকতে পারতাম না একদম । বাসায় এসে ওকে কোলে নিতাম , তারপর ঘুম পর্যন্ত বাবা মেয়ে একসাথে । ঘুম এর সময় স্নেহা বাবাকে অনেক শক্ত করে চেপে ধরে ঘুমাত। মাঝে মাঝে ওর আম্মু হিংসে শুরু করে দিতো । সকাল বেলা স্নেহাকে ছেড়ে বাইরে যেতে মন চাইত না । যখন সে ৫ বছর এ পড়লো আমার শান্ত স্নেহা অনেক দুষ্টু হয়ে গেল । বাবার কাছে আবদার চলতো , আর চলতো আম্মু কে নিয়ে শত শত অভিযোগ । সারাদিন পর যেটুকু সময় পেতাম স্নেহা কে অনেক ভালো সময় কাটত ।
স্নেহার ঘরটা অনেক বড় । পূর্ব পাশের জানালাটা দিয়ে বিশাল আকাশ দেখা যায় । ওর মন টা আসলেই আকাশ এর মত হয়েছে , কারও কষ্ট সহ্য করতে পারে না । আম্মু একটু বকা দিলেই বাবার কোলের মাঝে লুকিয়ে সে কি কান্না । পাগলি মেয়ে একটা ।
আজ তার জন্মদিন । মনে পরে স্নেহার ৬ তম জন্ম দিন টির কথা , সেদিনও অনেক বৃষ্টি হচ্ছিলো । বাবা মেয়ে মিলে আম্মু কে ফাকি দিয়ে সেদিন অনেক সময় ভিজেছিলাম ছাদে বৃষ্টিতে , স্নেহা অনেক ভালো গান করে । ও গান করছিল আর বাবার হাত ধরে ভিজছিল । সেদিন ওর আম্মু অনেক বকেছিল আমাকে এবং স্নেহাকে কারণ অনেকটা সময় ভিজে বাবা ও মেয়ের সর্দি লেগে গেছিলো ।
আরও অবাক লাগে এটা ভেবে যে আমার সাত বছরের মেয়েটা অনেক বড় হয়ে গেছে মনের দিক থেকে । আমি যখন অসুস্থ থাকতাম স্নেহা আমার হাত ধরে থাকতো আর বলত বাবা তোমার কিছু হবে না , আমি আছি না । কিন্তু আমি পারিনি , আমি ওকে বুকের মাঝে চেপে ধরে রাখতে পারিনি । মাত্র ৮ বছর বয়সে সে মারা যায় । হসপিটাল এর সাদা বিছানায় বাবার কোলে মাথা রেখে স্নেহা মারা যায় । ও বলত আমার কিছু হবেনা বাবা দেখো কিন্তু আমি তাকে বাঁচাতে পারিনি । বাবার বুকের মাঝ থেকে কেড়ে নেওয়া হয়েছিল আমার স্নেহা কে ।
বলেছিলাম না আজ আকাশ কাঁদবে । বৃষ্টি … ছাদে দাড়িয়ে একা ভিজছি । এক সময় আমার হাতে একটা স্পর্শ পাই , চোখ মেলে দেখি স্নেহা । আমার স্নেহা । বাবা একা একা ভিজছ , আমাকে ডাকলানা কেন ? যাও , তোমার সাথে আরি , কথা বলবনা । এমন করেনা মিষ্টি মামুনি , আয় এখন ভিজি । আমার লক্ষ্মী মেয়ে , রাগ করে না ।
একটা মানুষ কে দেখা গেলো ছাদের উপর একা দাঁড়িয়ে থাকতে । চোখের পানি টুকু কেউ বুঝলনা , বৃষ্টির পানির সাথে মিশে যাচ্ছে তার কষ্ট গুলো….

লিখেছেনঃ Akib Hasan Moon Aryan

About Ontohin

Check Also

ভাত, কাপড়, ভালবাসা

( ভুমিকায় বলে নেই, গল্পের বক্তা চরিত্রটির মত আমিও নারীবাদি নই।আমি মানি নিয়তি নারী পুরুষ …