Home / হালচাল / চুল পড়ার কারণ

চুল পড়ার কারণ

hairfallঅল্প বয়সে মাথার চুল পড়ে যাওয়া ছেলে মেয়ে দুইজনের জন্য ভীষণ দুশ্চিন্তার একটি কারণ। একজন মানুষ গড়পড়তায় প্রতিদিন ১০০টি করে চুল হারায়। শুনতে কিছুটা অবাক লাগলেও সেটাই সত্য। তবে এর চেয়ে বেশি পরিমাণে চুল হারালে সেটা চিন্তার বিষয়। তাই অল্প বয়সে চুল হারানোর দুশ্চিন্তা এড়াতে কিছু বিষয়ে সতর্ক হলে এ থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।
অতিরিক্ত এন্টিবায়োটিক সেবনঃ

অতিরিক্ত এন্টিবায়োটিক খাওয়ার কারণে অনেক সময় চুল পড়ে যায়। বিশেষ করে জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল গ্রহণের কারণে নারীদের চুল বেশি ঝরে যায়। তাই প্রয়োজন ছাড়া ঔষুধ সেবন উচিৎ নয়।

দুশ্চিন্তাঃ

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন চুল পড়ে যাওয়ার অন্যতম প্রধান একটি কারণ দুশ্চিন্তা। শুধু চুলেরই নয় এটি ত্বকেরও অনেক ক্ষতি করে।

চুলে অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারঃ

আমরা অনেকেই চুলে নিত্য নতুন স্টাইলের জন্য জেল ব্যবহার করে থাকি। সেটা কতটা ক্ষতিকর তা কি কখনো ভেবে দেখি। জেল চুলের মারাত্মক ক্ষতি করে। এটি চুলের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা নষ্ট করে ও চুলের গোড়া নরম করে দেয়।

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মিঃ

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মী অল্প বয়সে চুল পড়ার অন্যতম কারণ। সূর্যের তাপ মাথার ত্বকের আর্দ্রতা নষ্ট করে, চুলকে শুষ্ক ও দুর্বল করে ফেলে। যা চুল পড়ে যাওয়ার প্রধান কারণ। তাই রোদে গেলে চুল ঢেকে রাখাই ভাল।

গরম পানি ব্যবহারঃ

গরম পানি দিয়ে নিয়মিত চুল ধৌত করলে অনেক দ্রুত চুল পড়ে যায়। গরম পানি ব্যবহারের ফলে মাথার ত্বকের স্বাভাবিক তেল নিঃসরণ বন্ধ হয়ে চুল শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যায়। গরম পানি চুলের গোড়া নরম করে ফেলে এবং এর ফলে কম বয়সে চুল পড়ে যায়।

ভুল শ্যাম্পু বাছাইঃ

অল্প বয়সে চুল পড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ হলো সঠিক শ্যাম্পু ব্যবহার না করা। যদি আপনার মাথায় চুল কম থাকে এবং দুর্বল থাকে, সে ক্ষেত্রে অবশ্যই কেমিক্যাল সমৃদ্ধ শ্যাম্পু এড়িয়ে চলতে হবে। এক্ষেত্রে সব সময় মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করা শ্রেয়।

About Ontohin

Check Also

চুলের সাজ

মিউনিস ব্রাইডালের প্রধান রূপ বিশেষজ্ঞ তানজিমা শারমিনের মতে, স্টাইল এক হলেও বিভিন্ন ধরনের চুলে একই …